Bot traffic এর ফলে ওয়েবসাইটের seo তে যে সকল প্রভাব পড়ে - 2021

 হয়তো অনেকেই জানেন, বাংলা টাইপোগ্রাফি, ক্যালিগ্রাফি, লেটারিং ডিজাইন রিলেটেড আমার আরেকটি ওয়েবসাইট রয়েছে। সাইটটিতে বেশ কিছুদিন যাবত ওয়েবসাইটটিতে bot ট্রাফিক পাঠানো হচ্ছে। প্রথমে বিষয়টি টেড় না পেলেও হঠাৎ ভিজিটর বেড়ে যাওয়ায় সন্দেহ হয়। গভীরভাবে বেশ কয়েকদিন বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করি। অভিজ্ঞদের সাথে কথা বলে বুঝতে পারি কেউ সাইটে শত্রুতাবশত bot ট্রাফিক পাঠাচ্ছে। ওয়েবসাইটে নিয়মিত ফেইক ভিজিটর পাঠালে গুগল ranking পজিশন হারানোর সম্ভাবনা বেড়ে যায়। স্বাভাবিক অবস্থায় ওয়েবসাইটটিতে দৈনিক ২৫০+ ভিজিটর ছিল। কিন্তু, এখন ঠিক তার উল্টো হচ্ছে।


Bot traffic has an impact on the seo of the website. Bot traffic এর ফলে ওয়েবসাইটের seo তে যে সকল প্রভাব পড়ে। seo bangla tricks 2021

তাছাড়া, বাংলা টাইপোগ্রাফি লিখে গুগলে সার্চ করলে ওয়েবসাইটটি প্রথম পেজে show করত। এখন show করছে না। একটি ওয়েবসাইট গুগলে rank করাতে প্রচুর সময় ব্যয় করতে হয়। যারা seo এক্সপার্ট, তারা বিষয়টি ভালো বোঝেন। যদি এভাবেই চলতে থাকে, তাহলে ডোমেইন পরিবর্তন করা ব্যতীত ভিন্ন কোনো পথ বাকি থাকবে না। দৈনিক bot ট্রাফিক সাইটের জন্য কতটুকু bad effect তৈরি করে। যারা নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখেন, তারাই বলতে পারবেন। bot ট্রাফিকগুলো সাধারণত Singapore, US, UK ইত্যাদি লোকেশন থেকে পাঠানো হয়। এক দিকে  গুগল তাদের অ্যালগরিদম আপডেট করছে। সে কারণে নতুন পোস্টগুলো index হতে সময় নিচ্ছে। কোন কোন পোস্ট index হচ্ছে না। অপর দিকে bot ট্রাফিকের কারণে ওয়েবসাইট তার আগের পজিশন হারাচ্ছে। সব মিলিয়ে ওয়েব সাইটের ট্রাফিক পুরাতন পোস্টের উপর নির্ভর করছে।

কথাগুলো এ কারনেই বললাম, অনেকেই ওয়েব সাইটের ভিজিটর বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার করেন। এ সকল সফটওয়্যারগুলো থেকে boot ট্রাফিক পাঠানো হয়। রিয়েল ভিজিটর কখনই সফটওয়্যারের মাধ্যমে পাঠানো সম্ভব না। তাই, বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার করে সাইটে প্রচুর ভিজিটর নিয়ে আসবেন, ফলে ওয়েবসাইট দ্রুত rank করবে বলে যারা ভাবছেন। তারা আপাতত এমন চিন্তা-ভাবনা বাদ দিতে পারেন। বর্তমানে গুগল অ্যালগরিদম অনেক আপডেট। বার বার ফেইক ভিজিটর পাঠানোর ফলে আপনার সাইট গুগল থেকে block হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


1 Comments

Thank you for your valuable feedback. We will review your feedback soon.

  1. গ্রাফিকবাড়ি সাইটটি কিছুদিনের জন্য হাইড করে রাখুন, কিছুদিন পর আবার সাইটটি পাবলিক করে দিলে এই সমস্যা হয়তো কম হবে।

    ReplyDelete
Previous Post Next Post