গার্মেন্টস খোলা তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কেন বন্ধ - Tips Tune

 গতবছর করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে গেলে ১৮ই মার্চ থেকে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারিভাবে ছুটি ঘোষণা করা হয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করা হলেও বারবার সিদ্ধান্ত থেকে পিছপা হয়। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার ফলে শিক্ষার্থীরা তাদের অবসর সময়টুকু বিভিন্ন গেইমে নষ্ট করছে। কোমলমতি শিশুরা বিভিন্ন অপরাধে জড়িত হচ্ছে। যার ফলে সামাজিক মূল্যবোধ কমে যাচ্ছে। বিগত বছরের মাঝামাঝিতে বেফাক ও হাইয়া বোর্ডের প্রতিনিধিদল সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকের মাধ্যমে কওমী মাদ্রাসাগুলো খোলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শেষ পর্যন্ত মাদ্রাসাগুলো খোলা রাখা হয়। চলতি বছরের এপ্রিলে লকডাউন ঘোষণা করা হলে পুনরায় মাদ্রাসাগুলোতে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়। আশ্চর্যের বিষয় হলো: আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে মাদ্রাসায় অবস্থানরত ছাত্র-শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে বিচ্ছিন্নভাবে একটি ঘটনা ঘটতে পারে।


গার্মেন্টস খোলা তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কেন বন্ধ - Tips Tune . free bangla typography, calligraphy, lettering design


চলতি বছরে করুনার অজুহাতে প্রায় ৫-৬ মাস যাবৎ কওমী মাদ্রাসাগুলো বন্ধ রাখা হয়েছে। যেহেতু গত বছর এ সকল দিনের প্রতিষ্ঠানগুলোতে করোনা সংক্রমণের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। তাই অন্তত এ সকল দ্বীনি প্রতিষ্ঠানগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলার অনুমতি দেওয়া হোক। সারা বিশ্বে করোনা মহামারিতে দীর্ঘ সময় যে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে সে সকল দেশের মধ্যে বাংলাদেশও একটি। আমরা চাই সঠিক পরিকল্পনা এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে দ্রুত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেওয়া হোক।

Post a Comment

Thank you for your valuable feedback. We will review your feedback soon.

Previous Post Next Post