Bangla Typography Design: গুগল এডসেন্স | Google Adsense নিয়ে আমার কিছু কথা

নতুন Bangla Typography Design “এডসেন্স এপ্রুভ” নিয়ে হাজির হলাম। টাইপোগ্রফিটি ডিজাইন করার উদ্দেশ্য হল: বিগত এক বছর যাবৎ এডসেন্স নিয়ে যে সকল ভোগান্তিতে ছিলাম। সে সকল বিষয়ে আলোচনা করবো। এবং আমার ছোট খাটো অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করবো।

Bangla Typography Design: গুগল এডসেন্স | Google Adsense নিয়ে আমার কিছু কথা। Bangla Calligraphy, Font Design

ফাইনালি এই ব্লগ সাইটটিতে Adsense approve হয়েছে। তবে, এ জার্নিটা একে বারেই সহজ ছিল না। বিভিন্ন চড়াই উতরাই পাড় করতে হয়েছে আমাকে। আজকে গুগল Adsense approve নিয়ে আমি আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করবো। শুরুতেই বলে রাখি: অনেকেই গুগল Adsense approve নিয়ে তাবিজ বিক্রি করে। ভুলেও সে সকল তাবিজ বিক্রেতাদের খপ্পরে পড়বেন না। আপনার সাইটে মান সম্পন্ন আর্টিকেল থাকলে গুগল Adsense খুব সহজেই approve হয়ে যাবে। তবে, এপ্রুভ  হতে কিছু সময় ধৈর্য ধারণ করতে হয়। কেননা, করোনা পরিস্থিতির কারণে সারা বিশ্বে এখন থমথমে পরিস্থিতি বিরাজমান। তাই, এপ্লাই করার ২ সপ্তাহের ভেতর এডসেন্স অ্যাপ্রুভ হবে বলে আশা করি।

ঘটনাটি ২০২০ এর। graphictemplate.com নামে আমার একটি ব্লগ সাইট ছিল। আমি সেই সাইট থেকে Adsense এর জন্য এপ্লাই করি। বেশ কিছুদিন অপেক্ষা করার পর যখন দেখি, এপ্রুভ  হতে বিলম্ব হচ্ছে। তখন একাউন্ট রিমোভ করে দেই। এবং নতুন আরেকটি একাউন্ট তৈরির সিদ্ধান্ত নেই। নতুন একাউন্ট থেকে এপ্লাই করলে গুগল থেকে মেইল পাঠানো হয়: আপনার পূর্বে একটি Adsense একাউন্ট রয়েছে। এখান থেকেই সমস্যার উৎপত্তি। আমি প্রথম একাউন্টটি দিয়ে পুনরায় এপ্লাই করলে মেইলে জানানো হয়, ২য় একাউন্টটি রিমোভ করতে। কিন্তু, ২য় একউন্ট Adsense একাউন্ট রিমোভ করার অপশন পাচ্ছিলাম না। তাছাড়া, আমার কাছে ২য় জিমেইল একাউন্টটি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। তাই, জিমেইল একাউন্টটি রিমোভও করতে পারছিলাম না। বাধ্য হয়েই bangla-typography.com নামে নতুন আরেকটি ডোমেইন কিনে ফেলি। এবং সেই সাইটে কিছু টাইপোগ্রাফি ডিজাইন আপলোড করার পর নতুন জিমেইল একাউন্ট খুলে আবেদন করি। কিন্তু, এবার নতুন আরেক সমস্যা পড়ি। নতুন জিমেইল যেই সিম থেকে ভেরিফাই করেছিলাম। সেই সিমে দিয়ে ভেরিফাই করা অন্য এক জিমেইল একাউন্ট থেকে আমার বড় ভাই ২ বছর আগে একবার এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করেছিল। সে কারণে, অগত্যা বাধ্য হয়েই সাইটটি বন্ধ করে দেই। এই নতুন ডোমেইনটি ক্রয় করি। এটা ছিল গুগল এডসেন্স এপ্রুভ নিয়ে আমার তিক্ত অভিজ্ঞতা। 

 আপনারা যারা ব্লগ সাইটে বিভিন্ন গাফিক ডিজাইন আপলোড করেন। তাদের জন্য কিছু টিপস থাকবে। চাইলে, সেগুলো ফলো করতে পারেন।

  ১/  ব্লগ সাইটটি মূলত লেখা-লেখির জন্য। তাই, ডিজাইনের পাশা-পাশি ডিজাইন রিলেটেড আর্টিকেল লিখুন। তাহলে, আপনার সাইট দ্রুত rank করতে। আর্টিকেল ২ থেকে ৩ শত ওয়ার্ডের ভেতরও হতে পারে। চাইলে বেশি ওয়ার্ডেও লিখতে পারেন। ১৫-২০ টি ভালো আর্টিকেল লিখলে গুগল এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করলে এপ্রুভ হবে।
  ২/ এডসেন্সের এপ্লাই করার পর ধৈর্য সহকারে অপেক্ষা করুন। ২ সপ্তাহের ভেতর এপ্রুভ হবে। ভুলেও এডসেন্স একাউন্ট রিমোভ করবেন না।
  ৩/ কোনো কারণে যদি আপনার এডসেন্স একাউন্টটি ব্যান হয়ে যায়। তাহলে, সে ডিভাইসে লগইন করা ছিল। সেই ডিভাইস  এবং ব্রাউজার থেকে পুনরায় আবেদন করতে পারবেন। আলাদা ব্রাউজার বা ডিভাইসের প্রয়োজন হয় না।  
  ৪/  যেই সিম এবং জিমেইল ব্যবহার করে একবার এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করেছেন। দ্বিতীয়বার একই জিমেইল এবং সিম ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

এডসেন্স নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করুন।

4 Comments

Thank you for your valuable feedback. We will review your feedback soon.

  1. ওয়েবসাইটের মনিটাইজেশন অন করার জন্য কি কোন মাইলস্টোন পূরণ করতে হয়? বা কোন শর্ত আছে কিনা

    ReplyDelete
    Replies
    1. আপনি ১৫ থেকে ২০ টি আর্টিকেল লিখুন। এরপর কিছুদিন অপেক্ষা করে এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করুন। আশা করি, এপ্রুভ হবে।

      Delete
  2. Replies
    1. আচ্ছা, আমি চেক করছি।

      Delete
Previous Post Next Post