বাংলা টাইপোগ্রাফি ডিজাইন: পরীক্ষা সমাচার ২০২১

 ২৪/০৩/২০২১ ইং রোজ বুধবার। আমি তখন জালালাইন জামাতে পড়ি। পরের দিন বার্ষিক পরীক্ষা শেষ হবে। আমি অন্যান্য বছর পরীক্ষাকালীন সময়ে রাত সাড়ে ১০ টার পর ঘুমিয়ে যেতাম। পরীক্ষাকালীন সময়ে রাত জেগে পড়ার অভ্যাসটা বিগত ২ বছর ধরে। এবার আমি একটু বেশিই চাপ নিচ্ছি বা নিতে হচ্ছে। কারণ, ২-৩ টা পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর মাদ্রাসা থেকে নোটিশ টাঙানো হয়: আগামী বছর যারা মাদ্রাসায় ভর্তি হতে ইচ্ছুক। তাদের গড় নাম্বার ৬৫% থাকতে হবে। হঠাৎ এমন নোটিশ দেখে একটু বেশিই ঘাবড়ে যাই। আমি সাধারণত একটু বেশিই ভয় পেয়ে থাকি। এমনকি সাধারণ বিষয়গুলোকে মাঝে মাঝে কঠিন করে ফেলি। এটা আমার প্রাচীন অভ্যাস। যাই হোক, আমার সামনে কয়েকটা বিপদ। প্রথমত, আমি ভালো ছাত্র না এ কারণে আমার গড় ৬৫ নাম্বার পাওয়াটা একেবারেই অসম্ভব একটা বিষয়। দ্বিতীয়ত, জালালাইন জামাতে গড়ে ৬৫ তোলা অনেক কঠিন। কেননা, আমাদের মাদ্রাসার পরীক্ষার নিয়ম একটু ভিন্ন। পরীক্ষায় পাশ করতে প্রতি বিষয়ে অবশ্যই ৫০ নাম্বার থাকবে হবে। ৮০ তে জায়্যিদ, ৯০ এ জায়্যিদ জিদ্দান। আব ৯৫ এ মুমতাজ। আবার, পরীক্ষায় ৩ টি প্রশ্ন করা হয়। সকল প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।  তাছাড়া, প্রশ্নগুলো মোটেও সহজ নয়। বইয়ের কোন মাথা থেকে কি দিবে। এটা কেউ জানে না।

Bangla Typography Design: porikkha shomacar 2021. বাংলা টাইপোগ্রাফি ডিজাইন: পরীক্ষা সমাচার ২০২১

এ বছর পরীক্ষাকালীন সময়ে রাত সাড়ে ৩ টা পর্যন্তও পড়তে হয়েছে। সাধারণত, রাতে জেগে থাকার জন্য চা/কফি খেয়ে থাকি। আমি রাত ১১ টার দিকে চা খেয়ে পড়তে বসি। কিছুক্ষণ পড়ার পর দেখি চোখে প্রচণ্ড ঘুম চলে আসে। বাহির থেকে একটু হাটা-হাটি করে পড়তে বসি। এভাবে রাত ২ টা পর্যন্ত চলে। দীর্ঘ দিন যাবত অনিদ্রা থাকার দরুন শরীর একটু বেশি ক্লান্ত। শরীরের ক্লান্তি দূর করার জন্য চায়ের দোকানের দিকে যাই। আমাদের এখানে সারা রাত চায়ের দোকানগুলো খোলা থাকে। অবশ্য যাওয়ার পথে একদল কুকুরের তাড়া খেতে হয়। যাই হোক, সেদিন রাত ৪ টার পর ঘুমাতে যাই। মাত্র ঘণ্টাখানেক ঘুমানোর পর পুনরায় উঠে পড়তে বসি। বার্ষিক পরীক্ষার দিনগুলো ছিল অনেক কষ্টের। 

Post a Comment

Thank you for your valuable feedback. We will review your feedback soon.

Previous Post Next Post